গোলাম আযমের রায়কে ঘিরে ফের হরতাল, ভাঙচুর

hortalউইমেন চ্যাপ্টার (১৪ জুলাই): একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধে জামায়াতে ইসলামির তৎকালীন আমির গোলাম আযমের মামলার রায় ঘোষণা হতে যাচ্ছে আগামীকাল সোমবার। এর প্রতিবাদে সারাদেশে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ডেকেছে জামায়াতে ইসলামি। রায়ের তারিখ ঘোষণার পরপরই রাস্তায় নেমে এসে ভাংচুর চালায় ইসলামি ছাত্রশিবিরের কর্মীরা। মহাখালীতে পুলিশের ধাওয়া খেয়ে জামায়াতের একজন নেতা মারা গেছেন বলে দাবি করা হয়েছে সংগঠনটির পক্ষ থেকে।

রাজধানীর বিজয়নগরে ঝটিকা মিছিল নিয়ে হামলা চালিয়ে তিন পুলিশ সদস্যকে আহত করেছে জামায়াত-শিবির কর্মীরা। পুলিশের ব্যবহৃত একটি মাইক্রোবাস পুড়িয়ে দেয়া হয়।

পুলিশ জানায়, রোববার বেলা ২টার পর পল্টন মোড় থেকে বিজয়নগরের পানির ট্যাঙ্কির মাঝামাঝি এলাকায় এ ঘটনায় আরো বেশ আন্তত আটটি গাড়ি ভাংচুর করা হয়। ঢাকা মহানগর পুলিশের উপ কমিশনার মেহেদী হাসান জানান, আহত পল্টন থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আলমগীর হোসেনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নাসির উদ্দিন নামের এক উপ পরিদর্শক ও রফিকুল ইসলাম নামের এক সহকারী উপ পরিদর্শকও আহত হয়েছেন হামলায়।
এদিকে, জামায়াতে ইসলামির একজন নেতা বিবিসি বাংলাকে জানান, মহাখালীতে জামাত-শিবির কর্মীরা রাস্তায় বিক্ষোভ মিছিল বের করলে পুলিশ তাদের বাধা দেয়। এসময় ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়। একপর্যায়ে পুলিশ কয়েকজনকে আটক করে নিয়ে যাওয়ার পর একজন অসুস্থ হয়ে পড়ে। হাসপাতালে নেয়ার পর তিনি মারা যান। নিহত ব্যক্তির নাম আবু আলা ইকবাল। তিনি গুলশান কমার্স কলেজের প্রভাষক। তাকে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানা জামায়াতের আমির বলে দাবি করেছেন জামায়াত নেতারা।
তবে এ ব্যাপারে তেজগাঁও থানা পুলিশ বলছে, তারা শুনেছেন একজন ব্যক্তি মারা গেছেন। কিন্তু কেন, কিভাবে মারা গেছেন তা তারা বলতে পারেননি। বনানী থানার ওসি বলেছেন, তিনিও খবরটি শুনেছেন মিডিয়া কর্মীদের কাছ থেকে। এর বেশি কিছু জানেন না।

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.