শুধু কথা নয়, এবার প্রমাণ করার পালা

0

উপমা মাহবুব:

আইনগতভাবে অপ্রাপ্তবয়স্ক মেয়েশিশুর বিয়ে তাহলে শুরু হয়েই গেল! বাল্যবিবাহ নিরোধ বিল পাশ হবার মাত্র চার সপ্তাহের মাথায় চট্টগ্রামে দুই পরিবারের সম্মতিতে আদালতের সমঝোতায় ১৪ বছর আট মাস বয়সী এক কিশোরীর বিয়ে হলো প্রেমের ফাঁদে ফেলে গর্ভবতী করে তারপর বিয়ে করতে অস্বীকার করা প্রতিবেশি যুবকের সঙ্গে মেয়েটির সন্তানের বয়স এখন বছর মাস (সূত্র: প্রথম আলো, ২৪ মার্চ ২০১৭)

নাহ এটা নিয়ে কোন হইচই হয়নি সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড়ও উঠেনি বিল পাশ হওয়া ঠেকানো যায়নি, তাই আমরা হার মেনে নিয়েছি যে বদমাস লোক ধর্ষণ মামলা থেকে বাঁচার জন্য কিশোরী এবং তার সন্তানকে স্বীকৃতি দিয়েছে তার সঙ্গে মেয়েটির আগামী দিনগুলো কেমন আনন্দময় (!) হবে, সেই প্রশ্ন আমরা আর তুলবো না রাষ্ট্রকে প্রশ্ন করবো না ভুল করে অথবা ধর্ষণের শিকার হয়ে অপ্রাপ্ত বয়সে মা হওয়া কিশোরী এবং তার সন্তানদের সকল দায়িত্ব কি শুধু পরিবারের, রাষ্ট্রের কি এই মেয়ে শিশু এবং তার সন্তানের ভবিষ্যত যেন নষ্ট না হয় বিষয়ে কোন দায় নেই?

এই প্রশ্নগুলো জিজ্ঞেস করতে করতে আমরা ক্লান্ত হয়ে গেছি পৃথিবীতে গণতন্ত্র, সমাজতন্ত্র, রাজতন্ত্র, স্বৈরতন্ত্রএরকম যত তন্ত্র আছে পিতৃতন্ত্র সব তন্ত্রের বাপ! রোমে গণতন্ত্রের সূচনা হয়েছিল, তাই নিয়ে ইতিহাস বইতে কত বাহারি বর্ণনা! অথচ কেমন গণতন্ত্র যেখানে নারীর ভোটাধিকার ছিল না, রাষ্ট্রীয় সিদ্ধান্ত গ্রহণে মতামত দেয়ার সুযোগ ছিল না, সেই প্রশ্নের জবাব কোথাও পাইনি

প্রাচীন গ্রিসে হেলেন নামের এক নারীর কারণে ধ্বংস হয়ে গেছে গোটা ট্রয় সভ্যতা, সেই গল্প আমরা সবাই জানি হেলেন স্বামীর সংসার ছেড়ে ট্রয়ের রাজকুমারের হাত ধরে পালিয়ে এসেছিলেন পরপুরুষের সঙ্গে পালিয়ে আসা! কি ভয়ংকর অপরাধ অতএব, হেলেনই দোষী

আমরা প্রশ্ন করি না, অসংখ্য স্ত্রীর একজন হওয়ার চেয়ে ভালবাসার মানুষের একমাত্র স্ত্রীর হওয়া বেশি সম্মানজনক কিনা? ইতিহাস ঘেঁটে কোথাও পাওয়া যাবে না যুদ্ধ জয় করে হেলেনকে জোর করে ফেরত নিয়ে গিয়ে কি অবস্থায় রেখেছিলেন তার প্রাক্তন স্বামী? এসব প্রশ্নের উত্তর জনাব হোমারের কাছে নেই কারণ তিনি অন্ধ হতে পারেন কিন্তু পুরুষতন্ত্রের বাহক বটে!

বিশ্ব সভ্যতা গড়েই উঠেছে পিতৃতন্ত্রের উপর ভর করে আমাদের রাষ্ট্রও তার বাইরে নয় অতএব রাষ্ট্রব্যবস্থার ক্ষেত্রে শুধু প্রশবিদ্ধ করে চিড়া ভিজবে না, কখনোই ভিজে নি যে বাল্যবিবাহ নিরোধ বিল পাশ হয়ে গেছে সেটা শুধু তখনই পরিবর্তন করা সম্ভব হবে যখন প্রমাণ করা করা যাবে যে এটা থেকে কিশোরীরা ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে নারীর ক্ষমতায়ন নিয়ে কাজ করেন ধরণের সংস্থাগুলো এক্ষেত্রে বড় ভূমিকা রাখতে পারে নতুন আইনের আওতায় যে কিশোরীটির বাল্যবিয়ে হলো শ্বশুরবাড়িতে তার কি অবস্থা তা নজরদারির মধ্যে আনতে হবে বিভিন্ন কার্যক্রমের মাধ্যমে তার নিজের এবং তার সন্তানের সুরক্ষার ব্যবস্থা করতে হবে

একইভাবে আইনটির আওতায় বাল্যবিয়ে হওয়া সকল কিশোরীর অবস্থা নিয়মিত পর্যবেক্ষণ, তাদের প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদান, বাল্যবিয়ের দীর্ঘমেয়াদি ফলাফলের উপর গবেষণা ইত্যাদি কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে এই তথ্যগুলো হবে বিলটির বিশেষ ধারা বাতিল করার দাবিতে যে অ্যাডভোকেসি কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে, তার অন্যতম হাতিয়ার বর্তমান আইনের আওতায় বাল্যবিয়ে হওয়া কিশোরীরা যখনই তাদের স্বামীর বাড়িতে নির্যাতনের শিকার হবে, বা কিশোরী বয়সে বিয়ে হওয়ার কারণে শারিরীকমানসিক অথবা সামাজিকভাবে প্রতিবন্ধকতার শিকার হবে, সঙ্গে সঙ্গে সেই খবর স্থানীয় সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগে পৌঁছে দেয়ার ব্যবস্থা করতে হবে সরকার যেন দাবি করতে না পারে যে বিবাহিত কিশোরীরা কোন সমস্যার সম্মুখিন হচ্ছে ধরণের পরিসংখ্যান তাদের কাছে নেই

মোট কথা, সরকারের পক্ষ থেকে বার বার যে কথাটি বলা হচ্ছে, কোন কিশোরী যদি ভুল করে মা হয়ে যায়, সেক্ষেত্রে তার নিজের ভালোর জন্যই আদালতের মাধ্যমে দুই পরিবারের সমঝোতায় বাল্যবিয়ে হতে পারে সেই বক্তব্যটিকে ) কিশোরীরা যে ভালো নেই এবং ) তাদেরকে ভালো রাখতে হলে কি করা যেতে পারেএই দুই ধরনের তথ্যের ভিত্তিতে ভুল প্রমাণিত করতে হবে নারীর ক্ষমতায়ন নিয়ে কাজ করার আমার কোন অভিজ্ঞতা নেই তাই এটি আমার নিজস্ব চিন্তাপ্রসুত মতামত যারা বিষয়ে বিশেষজ্ঞ তাদের কাছে আইনের এই বিশেষ ধারাকে ভুল প্রমাণ করার নিশ্চয় আরো ভালো বুদ্ধি আছে  

মোদ্দা কথা হলো, সিস্টেমের ভিতর ঢুকেই সিস্টেমকে পাল্টাতে হয় তাই বলি, বাল্যবিবাহ নিরোধ বিলের আওতায় বাল্যবিয়ে কিন্তু শুরু হয়ে গেছে! শুধু মুখে কথা না বলে তথ্যউপাত্ত দিয়ে এই আইনের বিশেষ ধারাটি যে নারীর সুরক্ষায় মোটেই সহায়ক নয়, সেটি প্রমাণে আমরা প্রস্তুত আছি তো?

লেখক: উন্নয়ন কর্মী

লেখাটি ৯১২ বার পড়া হয়েছে


উইমেন চ্যাপ্টারে প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। এই সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় উইমেন চ্যাপ্টার বহন করবে না। উইমেন চ্যাপ্টার এর কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না।

RFL
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.