মুরসিকে মুক্তি দিতে যুক্তরাষ্ট্রের আহ্বান

egyptউইমেন চ্যাপ্টার ডেস্ক: তীব্র গণআন্দোলনের মুখে মিশরের ক্ষমতাচ্যুত প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মুরসিকে মুক্তি দিতে এবার আহ্বান জানালো মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।

মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র জেন পাসাকি এক বিবৃতিতে জানান, মুরসির মুক্তির ব্যাপারে জার্মানির আবেদনের সাথে যুক্তরাষ্ট্র একমত পোষণ করে। যুক্তরাষ্ট্র প্রকাশ্যেই এখন মুরসিকে মুক্ত করে দেয়ার আবেদন জানাচ্ছে।

পাসাকি আরও জানান, যুক্তরাষ্ট্র চায় মুরসিকে যেখানে রাখা হয়েছে সে সম্পর্কে আরোপিত বিধি নিষেধ তুলে নেয়া হোক। পূর্বে জার্মানিও এক আবেদনে জানায়, আন্তর্জাতিক রেডক্রস কমিটির মতো নির্ভরযোগ্য সংস্থাকে মুরসির কাছে যাওয়ার অনুমতি দেয়া উচিত।

শুক্রবার পাল্টাপাল্টি সমাবেশের ঘোষণাকে কেন্দ্র করে আতংক ছড়িয়ে পড়লেও কোন সহিংসতা ছাড়াই সমাবেশ দুটি শেষ হয়। মুরসির সমর্থকরা নসর সিটিতে রাবা আল-আদাবিয়া মসজিদের বাইরে বিক্ষোভ সমাবেশ করে। এবং মুরসি বিরোধীরা তাহরির স্কয়ারে সমাবেশ করে।
নসর সিটিতে সমাবেশে মুরসি সমর্থকরা তাদের প্রেসিডেন্টকে স্বপদে পুনর্বহাল করা পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেয়। ইসলামপন্থী প্রধান নেতা সাফওয়াত হেগাজি বলেন, ‘আমরা প্রয়োজনে এক বা দু’মাস এমনকি প্রয়োজন হলে এক বা দু’বছর এখানে অবস্থান করবো। আমাদের প্রেসিডেন্ট মোহাম্মাদ মুরসিকে ক্ষমতায় পুনর্বহাল না করা পর্যন্ত আমরা স্থান ত্যাগ করবো না।’

এদিকে হোয়াইট হাউসের এক বিবৃতিতে বলা হয়, মিশরে চলমান সংকট নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ওবামা সৌদি বাদশা আব্দুল্লাহর সঙ্গে কথা বলেছেন। এসময় তারা একমত হন যে, মিশরের স্থিতিশীলতা রক্ষার ক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্র ও সৌদি আরবের অভিন্ন স্বার্থ রয়েছে।

সামরিক অভ্যুত্থানের পর মিশরে সহিংসতা ছড়িয়ে পড়াতে চরম উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ওবামা। তিনি গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত বেসামরিক সরকারের কাছে ক্ষমতা ফিরিয়ে দেয়ার প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

উল্লেখ্য, সৌদি বাদশা আবদুল্লাহই সর্বপ্রথম মিশরের অন্তর্বর্তী সরকারের প্রেসিডেন্ট আদলি মানসুরকে অভিনন্দন জানান।

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.