শফীকে গ্রেপ্তারের দাবি জানালো বিভিন্ন মহল

nari sangbadik kendroউইমেন চ্যাপ্টার ডেস্ক (১৩ জুলাই): ধর্মীয় এক বয়ানে নারীদের বিরুদ্ধে কুরুচিপূর্ণ ও অবমাননাকর বক্তব্য রাখায় হেফাজতে ইসলামের আমির আহমদ শফীর গ্রেপ্তার ও বিচার দাবি করেছে কয়েকটি নারী সংগঠন। এছাড়াও বিভিন্ন মহল থেকে এই বক্তব্যের তীব্র সমালোচনা করা হয়েছে।

শনিবার সকাল ১১টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ নারী সাংবাদিক কেন্দ্র এক মানববন্ধন করে এই দাবি জানায়। ‘নারীবিদ্বেষী ও সংবিধানবিরোধী’ বক্তব্য দেয়ার জন্য শফীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবিতে অনুষ্ঠিত ওই কর্মসূচিতে উপস্থিত হয়ে দাবির প্রতি একাত্মতা জানায় পেশাজীবী নারী সমাজ।

এসময় নারী সাংবাদিক কেন্দ্রের সভাপতি নাসিমুন আরা হক ও সাধারণ সম্পাদক পারভীন সুলতানা, পেশাজীবী নারী সমাজের সভাপতি মাহফুজা খানম, নারীনেত্রী অধ্যাপক মমতাজ লতিফ বক্তব্য রাখেন। তারা আহমদ শফীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে দ্রুত স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের হস্তক্ষেপ চান।

এদিকে, শনিবার সন্ধ্যায় এক বিবৃতিতে বাংলাদেশ নারী মুক্তি সংসদের সভানেত্রী হাজেরা সুলতানা ও সাধারণ সম্পাদক সালেহা সুলতানা বলেন, ‘শফী তার বক্তব্যে নারীদের অবজ্ঞা নয়, অপমানও করেছেন। এ অপরাধে অবিলম্বে তাকে গ্রেপ্তার করে বিচারের আওতায় আনা হোক’।
শফীর ওই বক্তব্যের সমালোচনা করেছে নাগরিকদের আরো কয়েকটি সংগঠনও।

‘বাংলাদেশ রুখে দাঁড়াও’ এর ব্যানারে ১৭ জন বিশিষ্ট নাগরিক শনিবার এক বিবৃতিতে শফীর বক্তব্যকে ‘কুরুচিপূর্ণ’ আখ্যায়িত করে বলেন, এই বক্তব্য বিকৃত মানসিকতার পরিচায়ক।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও ওই বক্তব্যকে ‘নোংরা ও জঘন্য’ বলে আখ্যায়িত করেছেন।

বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) নারী সেলের আহ্বায়ক লক্ষ্মী চক্রবর্তী এক বিবৃতিতে বলেছেন, আহমদ শফী তার এই বক্তব্যের মধ্য দিয়ে প্রমাণ করেছে হেফাজত ইসলাম মধ্যযুগীয় কায়দায় নারীকে গৃহবন্দী করে রাখতে চায়।

এদিকে আহলে সুন্নাত ওয়াল জমা’আত শনিবার চট্টগ্রামে এক ইফতার মাহফিলে বলেন, আহমদ শফী তার বক্তব্যে ইসলাম ও নারী সমাজকে মুখোমুখি দাঁড় করিয়ে দুর্নাম রটাচ্ছে। সংগঠনটির নেতৃবৃন্দ বলেন, ইসলামই নারীর সত্যিকার মর্যাদা, অধিকার ও মুক্তি নিশ্চিত করেছে। ইসলামের নির্দেশনা মেনে চললে ঘরে-বাইরে কোথাও নারীর নিরাপত্তা ও অধিকার বিপন্ন হবে না।

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.