লেখা চোরের যখন বড় গলা

শাশ্বতী বিপ্লব: কয়েকদিন চারদিকটা কেমন গুমোট যাচ্ছে। আত্মহত্যা, হত্যা, ধর্ষণ তো লেগেই আছে। তার উপর যোগ হয়েছে বৃদ্ধ অভিনেতার সার্কাস। এদিকে আবার কিছু মানুষ লেগেছে উইমেন চ্যাপ্টারের লেখকদের পেছনে। গালাগাল করছে, হেয় করার চেষ্টা করছে। এবং গোদের উপর বিষফোঁড়ার মতো সার্ভার সমস্যা তো আছেই। এতোকিছুর মধ্যে হাঁপিয়ে যাচ্ছি কেমন যেনো। তাই ভাবলাম সবাই মিলে একটু  হাসলে কেমন হয়।

Shaswati 5
শাশ্বতী বিপ্লব

হাসির উৎস কিছু কিউট ভাইয়া এবং তাদের লেখক হবার অদম্য আগ্রহ। এই কিউটা ভাইয়ারা অত্যন্ত নিষ্ঠার সাথে অন্যের লেখা চুরি করেন। শুধু চুরিই করেন না, তার জন্যে যে বাহবা পান সেটাও খুব মিষ্টি করে বিনীতভাবে গ্রহণ করেন এবং জ্ঞানী জ্ঞানী উত্তর দেন! আপত্তি জানালে ভুল স্বীকার না করে আবার ব্লকও মারেন, কিন্তু চুরি বন্ধ করেন না। ধন্যি ছেলের অধ্যাবসায় যাহোক।

উইমেন চ্যাপ্টারের লেখাচুরি কিন্তু নতুন নয়। ব্যক্তি যেমন চুরি করে, তেমনি চুরি করে অন্য অনলাইন পত্রিকাও। সম্পূর্ণ বিনা অনুমতিতে এবং লেখকের নাম বা সোর্স উল্লেখ করতে বেমালুম ভুলে যান। এক্কেবারে এত্তোগুলা কিউট, তাই না!!

তো, ভাই সাহেবেরা, আপনাদের কোন লেখা মনে ধরলে সেইটার লিংক শেয়ার দেন, কোন সমস্যা নাই।

লিংক শেয়ার দিতে খারাপ লাগে? কপি পেস্ট করতেই বেশি স্বচ্ছন্দ বোধ করেন? ঠিক আছে, কোন অসুবিধা নাই। লেখার নীচে লেখার সোর্স, লেখকের নাম উল্লেখ করেন। তাও করবেন না? কেন ভাই? আপনার নিজের লেখা বইলা চালাইতেই বেশি ভালো লাগে? আপনার যেকোন উপায়ে লেখক হইতে ইচ্ছা করে? বাহ্, ভালো। একবারও মনে হয়না যে যদি ধরা পরেন তাইলে লজ্জার ব্যাপার হইতে পারে?  অবশ্য লজ্জাতো আবার নারীর ভূষণ, আপনাদের থাকলেতো চলবে না।

আপনাদের  লেখাচুরির কষ্ট দেখে আমাদের কিন্তু খুব মন খারাপ লাগে। কত কষ্ট করে কপি করেন আবার পেস্ট করতে হয়। আবার প্রশংসাও গ্রহণ করতে হয়। তাই আমরা ঠিক করেছি, আমরাই আপনাদের মতো দিকপালদের নাম দিকে দিকে ছড়িয়ে দিবো। আমরা আছি কি করতে বলেন? এইটুকুন করতে পারবো না কিউট ভাইদের জন্য। আফটার অল আমাদের একটা দায়িত্ব আছে না।

আসুন, কয়েকজনের প্রোফাইল আর চুরি করা লেখার সচিত্র প্রতিবেদন দেখি। ক্রমশঃ আরো আসবে। কথায় আছে, চুরি বিদ্যা বড় বিদ্যা, যদি না পরো ধরা। কাজেই সাধু সাবধান।

14409094_10153894291288663_1557141500_nসাকিবুল হাসান, একজন পাবলিক ফিগার। উনি পথশিশুদের ও অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়াতে ভালোবাসেন। আর ভালোবাসেন লেখা চুরি। সাদিয়া নাসরিনের লেখাসহ উইমেন চ্যাপ্টারের আরো লেখা উনি নিজের মনে কইরা স্ট্যাটাস মারেন। একটা নমুনা এইখানে।

14429378_10153894291293663_1993958281_nআবার ধরেন, আরিফ নূর তনু সাহেব। উনিও ব্যাপক ভালো মানুষ। পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়েন। কোন খারাপ কথা বলেন না। কিন্তু লেখা চুরি করেন। প্রতিবাদ করলে আবার ব্লক মারেন, কিন্তু লেখাও সরান না, সোর্সও যোগ করেন না। উনি আমার এবং নায়না শাহরীনের লেখা চুরি করছেন। আমারটা পরে প্রতিবাদের মুখে মুছে দিলেও নায়নারটা বহাল তবিয়তেই আছে। কমেন্ট পাইছেন, “ফাটায়া ফেলসেন ভাই”। উনি বিনীতভাবে ধন্যবাদ জানাইসেন। 

14445345_10153894291243663_175538057_nআরেক কিউট ভাই, ইশতিয়াক মইনুল ইসলাম। ইনি আবার প্যারিসের বিজনেসম্যান। তালেবর লোক, কী বলেন! 

আশিক সারওয়ার হৃদ, কবি মানুষ। বইও ছাপিয়েছেন। তবে তসলিমা নাসরিনের কবিতাকে ভুলে নিজের বলে ছাপিয়ে ফেলেছেন। বেচারা, তাই বলে, পড়বি পড় মালীর ঘাড়ে? মুনমুন শারমিন শামসের ফ্রেন্ডলিস্টে উনার থাকার কী দরকার ছিল? মুনমুন একেবারে কবিতার বইয়ের ছবিসহ হাজির হয়ে গেলো। মুনমনের পাষাণ হৃদয়, একটুও দয়ামায়া নাই!!

14429654_10153894291383663_626779500_nআরো আছে, এই যে একটা অনলাইন পত্রিকা, বিথী হকের লেখা দিয়েছে। উনারা আবার আরো এক কাঠি সরস। লিংক দিয়েছেন, বিথীর নামও ঠিকভাবে দিয়েছেন। তবে লিংক এ ঢুকে আপনি আর বিথীর লেখার দেখা পাবেন না। সেখানে উল্টা পাল্টা ধর্মীয় কথাবার্তা লেখা আছে যা বিথীর লেখার পুরাই বিপরীত।

ভাববেন না শুধু এই কয়টা লেখাই চুরি হয়েছে। প্রায় প্রতিটি লেখা এভাবে নামে বেনামে চুরি হয়ে যাচ্ছে উইমেন চ্যাপ্টার থেকে এবং অনেকের টাইমলাইন থেকেও। কী আর করা। এদের জন্য একরাশ করুণা রইলো।

আর চোর ভাইয়ারা শুনেন, এই অভিযান চলতেই থাকবে। কয়টা আইডি ব্লক করবেন ভাই। আমরা যে অনেকজন। ধরা কিন্তু পরবেনই একদিন না একদিন।

 

শেয়ার করুন:
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.