শেষপর্যন্ত আওয়ামী প্রার্থীকেই সমর্থন দিলেন এরশাদ

ershadউইমেন চ্যাপ্টার ডেস্ক (০৪ জুলাই): আর দুদিন পরই (৬ জুলাই) গাজীপুরে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে প্রথম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন। নির্বাচনকে ঘিরে প্রস্তুতি এখন চূড়ান্ত পর্যায়ে। নিয়ম অনুযায়ী বৃহস্পতিবার মধ্যরাতেই সকল প্রচারণা বন্ধ হয়ে যাবে বলে মহাজোট সমর্থিত প্রার্থী আজমত উল্লাহ ও ১৮ দল সমর্থিত প্রার্থী আবদুল মান্নান শেষ মুহূর্তের প্রচারণায় ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন।

এদিকে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ আজ রীতিমতো সংবাদ সম্মেলন করে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীর প্রতি তার সমর্থনের কথা জানিয়েছেন। সংবাদ সম্মেলনে তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে আজমত উল্লাহর প্রতি তার সমর্থনের কথা জানান। সেইসাথে নিজ দলের সকল নেতা কর্মীকে আজমত উল্লার পক্ষে কাজ করার জন্য আদেশ দেন। কিন্তু এরই মধ্যে যারা আবদুল মান্নানের পক্ষে কাজ করেছেন, তাদের ব্যাপারে কোন ব্যবস্থা নেয়া হবে কি না সাংবাদিকদের এমন প্রশ্ন কিছুটা এড়িয়ে যান এরশাদ।

এর আগে দুই মেয়র প্রার্থীই দোয়া চাইতে এরশাদের কাছে যান। তখন কাউকেই তিনি সমর্থন দেননি। কিন্তু আবদুল মান্নান এরশাদের সাথে দেখা করে বেরিয়ে এসে বলেন যে, এরশাদ তাকেই সমর্থন করেছেন। এ নিয়ে বেশ ধোঁয়াশা তৈরি হয় রাজনৈতিক মহলে। আর এর রেশ কাটিয়ে উঠতেই আজ গুলশানে একটি ব্যাংকের কার্যালয়ে এরশাদ তার সমর্থনের ঘোষণা দেন।

প্রচারণায় আজ আব্দুল মান্নান গিয়েছিলেন গাজীপুরের পোশাক কারখানাগুলোতে। সেখানে তিনি আবারো সেনা মোতায়েনের দাবি জানান। তিনি তার কর্মীদের গ্রেফতারের কথা উল্লেখ করে বলেন, সরকার নিজের সম্পূর্ণ শক্তি প্রয়োগ করছে একজন প্রার্থীর জন্য। তিনি বলেন, আমার কয়েকজন কর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তাই নির্বাচনের শতভাগ নিরপেক্ষতা নিশ্চিত করতে অবিলম্বে সেনা মোতায়েনের বিকল্প নেই।

নির্বাচন কমিশন থেকে জানানো হয়, আজ রাত ১২টার পর থেকে বন্ধ হয়ে যাবে সকল প্রকারের নির্বাচনী প্রচার প্রচারণা। এসময় সকল প্রচার কর্মীকে নির্বাচনী এলাকা ত্যাগ করতেও নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.