নারী সম্মেলনে কোনো নারী নেই

nari sommelon-soudi arobউইমেন চ্যাপ্টার: নারী সমাজের কোন প্রতিনিধিত্ব ছাড়াই সৌদি আরবে অনুষ্ঠিত হলো ‘সমাজে নারী’ শীর্ষক এক সম্মেলন। এমন একটি সম্প্রতি হাফিংটন পোস্ট প্রকাশ করেছে। ছবিতে শুধুমাত্র মাথায় ঐতিহ্যবাহী স্কার্ফ বাঁধা এবং পরনে ঢিলে-ঢালা পোশাক পরা পুরুষদেরই বসে থাকতে দেখা গেছে। সৌদি নিউজপেপার অকাজ থেকে এই ছবিটি নেয়া হয়েছে বলে হাফিংটন পোস্ট জানায়।

সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় কাসিম ইউনিভার্সিটি এবং তাতে অংশ নেয় ১৫টি দেশের প্রতিনিধিরা। তবে একজনও নারী প্রতিনিধি উপস্থিত ছিল না এই সম্মেলনে। তবে ঠিক কবে সম্মেলনটি হয়েছে, তা জানা যায়নি।

হাফিংটন পোস্ট ছবিটির নিচে এই বলে মন্তব্য করেছে যে, স্বাভাবিকভাবে ছবিটি দৃষ্টিকটু মনে হলেও সৌদি আরবের রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট বিবেচনায় রাখলে তেমন বেশি খারাপ লাগা কাজ করে না। শরীয়া আইন মেনে চলে দেশটির ধর্মপ্রাণ পুলিশ। সম্প্রতি মেয়েদের মোটর বাইক এবং বাই সাইকেল চালানোর ওপর থেকে বিধিনিষেধ তুলে নিলেও, বোরকা বা হিজাব এখনও তাদের পোশাক, আর পুরুষ ছাড়া এখনও তাদের চলাফেরা নিষিদ্ধ।

সৌদি নারীরা এখনও পুরুষ ছাড়া দেশের বাইরে যেতে পারেন না। একান্তই যদি চার তাহলে তাদের অভিভাবকদের হলুদ কাগজে সই করা একটি কাগজ সীমান্তে দেখাতে হবে। ২০১১ সালে সৌদি নারীরা ভোটাধিকার পান। এদিকে ২০১২ সালের নভেম্বরে খবরে জানা যায় যে, ইলেকট্রনিক পদ্ধতিতে সৌদি নারীদের গতিবিধি নজরে রাখা হচ্ছে এবং তাদের স্বামীদের তা জানানো হচ্ছে। এরকম বেশ কয়েকটি ঘটনা সম্প্রতি প্রকাশ পেয়েছে। হাফিংটন পোস্ট আরও জানায় যে, সৌদি নারীদের ওপর ট্র্যাকিংয়ের বিষয়টি ধরা পড়ে যখন একজন স্বামী ইমিগ্রেশন কর্মকর্তা থেকে এসএমএস পান যে, তার স্ত্রী রিয়াদ বিমানবন্দর ত্যাগ করছেন।

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.