কেন এতো ছোট হলে তুমি সুমাইয়া…

শাশ্বতী বিপ্লব: আহ্ সুমাইয়া, তুমি কেন অতো ছোট হলে!! কেন তুমি সামিল হতে পারলে না ধর্ষকের আনন্দে? কেন তুমি বুঝলে না নারী শরীরের মূল্য? কেন তুমি ধর্ম শিখতে গেলে? কেন তুমি ঘর থেকে বের হলে?

Shaswati 5তোমাকে পোশাকের দোষ দেয়া যাচ্ছে না।

তোমাকে বয়সের দোষ দেয়া যাচ্ছে না।

তোমাকে উচ্চশিক্ষার দোষ দেয়া যাচ্ছে না।

তোমাকে ছেলবন্ধু বা প্রেমিক থাকার দোষ দেয়া যাচ্ছে না।

তোমাকে মাদকাসক্তির দোষ দেয়া যাচ্ছে না।

তোমাকে উপার্জনের দোষ দেয়া যাচ্ছে না।

তোমাকে বাবা-মা’র আলাদা থাকার দোষ দেয়া যাচ্ছে না।

তোমাকে মিডিয়ায় কাজ করার দোষ দেয়া যাচ্ছে না।

তোমাকে উচ্ছৃঙ্খলতার দোষ দেয়া যাচ্ছে না।

তোমাকে ধর্মহীনতার দোষ দেয়া যাচ্ছে না।

তোমাকে বিধর্মী বা সংখ্যালঘুর তকমাও পরানো যাচ্ছে না।

Kalo haatতুমি আমাদের বিপদে ফেলেছো সুমাইয়া। তুমি ধর্ষিত, তুমি মৃত। তোমাকে মেরে ফেলেও লুকানো যায় না পাপ। গায়ে আঁচড়ের দাগ, কামুক মুয়াজ্জিনের কামড়ের দাগ নিয়ে তুমি ভেসে ওঠো পুকুরের জলে। কেন ভেসে ওঠো সুমাইয়া? কেন তুমি চিরকালের মতো ডুবে থাকো না। যেমন ডুবে থাকে ভারী পাথর। তোমার মৃত্যু তো কম ভারী নয়। তবু কেন ভেসে ওঠো লজ্জাহীন, নির্দয় এই পৃথিবীর বুকে?

তুমি বেশি ছোট সুমাইয়া। তোমার বয়সের কারণেই তুমি মরেছো। নারী হতে তখনো তোমার বাকী ছিলো অনেকগুলো বছর। আনন্দ বলতে বুঝেছো কেবল ছুটোছুটি, লুকোচুরি খেলা।

শরীরকে বোঝার বয়স তোমার হয়নি। খেলতে গিয়ে পড়ে গেলে ব্যথা লাগে। শরীরের ক্ষুধা পায়, তৃষ্ণা পায়। তোমার কাছে এটাই তো শরীর।

শরীরের অন্যরকম ক্ষুধাও যে থাকে, তুমি কেন জানলে না? কেনো শিখলে না নিজের শরীরকে আড়াল করতে? আট বছরের ধর্ষণের অনুপযোগী ছোট্ট শরীরই ছিল তোমার অপরাধ। অপরাধ শরীরকে না বোঝার, অপরাধ ধর্ষককে গ্রহণ করতে না পারার। শাস্তি পেয়েছো সেই অপরাধের। শরীরকে বোঝার আগেই তাই শরীরের চরম মূল্য দিতে হলো তোমাকে সুমাইয়া।

ধর্মশিক্ষককে শরীরের উপর চড়াও হতে দেখে কী ভেবেছিলে তুমি সুমাইয়া? কতটুকু বিস্মিত হয়েছিলে তুমি নিজের শরীরের অমন ব্যবহার দেখে? শরীরের আনাচে-কানাচে মুয়াজ্জিনের কিলবিলে স্পর্শ তোমার ছোট্ট মনটাকে মেরে ফেলেছিলো মরে যাওয়ার আগেই।

তুমি ধর্ম শিখতে গিয়েছিলে মুয়াজ্জিন জহিরুল ইসলামের কাছে। আল্লাহর ঘরে মানুষকে ডাকে যে পুরুষ, সে তোমাকে ডেকে নিয়েছিলো একান্ত নিভৃতে। যার হাতে অবোধ শিশু মরে যায়, তার হাতে ধর্ম কী করে বাঁচে!!

সারারাত পুকুরের পানিতে ডুবে ডুবে তোমার সঙ্গে কি দেখা হয়েছিলো সৃষ্টিকর্তার? তোমাকে দেখে কি কেঁদেছিলো সে? কেমন করে কাঁদেন তিনি? কেমন করে বিলাপ করেন? কেমন করে সান্তনা খোঁজেন নিজের অসহায়ত্বের? সৃষ্টিকর্তারও কি মরে যেতে ইচ্ছে করে সুমাইয়া?

তোমার সঙ্গে আবার দেখা হলে বলো, তাঁর সাথে আমাদের কথা আছে। বোঝাপড়ার বাকী আছে অনেক। প্রশ্নের ডালা সাজিয়েছি, তাঁকেও উত্তর দিতে হবে একদিন।

শেয়ার করুন:
  • 589
  •  
  •  
  •  
  •  
    589
    Shares
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.