বিজ্ঞাপনে কর্মজীবী মায়েরা কোথায়?

নন্দিতা তাবাসসুম: প্রতিদিন আমাদের চোখের সামনে ভেসে বেড়ায় নানা বিজ্ঞাপন। যেখানে আমরা দেখতে পাই নানান অফার। অফারগুলির কথা না হয় বাদই দিলাম, সেগুলোর কাজ আমাদের ভোগবাদিতার দিকে ঠেলে দেয়া। কিন্তু এছাড়াও আরও অনেক কিছু আমরা দেখি, যা আমাদের মনে নানান ইমেজ তৈরি করে এবং নানান ইমেজকে আরও পাকাপোক্ত করে।

Nandita 2
নন্দিতা তাবাসসুম

প্রচলিত বিজ্ঞাপনগুলোতে আমাদের মায়েরা আজও কাপড় ধোয়, রান্না করে, খাবার বেড়ে বসে থাকে, অবশ্যই এগুলো খুবই গুরুত্বপূর্ণ কাজ। কিন্তু আশ্চর্য মনে হয় তখন, যখন কোনো বিজ্ঞাপনে এখনও মাকে অফিস যেতে দেখি না।

আমার মাকে আমি অফিস যেতে দেখেছি। নানুর কাছে থাকতাম, নানুবাড়ির খুব আদুরে ছিলাম আমরা দুই ভাইবোন। সাংবাদিক হওয়ার সুবাদে বাবা দিনে বাসায় থাকতো। কিন্তু আমরা সব কাজ একা করতে শিখেছি। ছোটবেলা থেকে ভাইয়ের খুব রান্নার ঝোঁক। বিকালে বাসায় ভাইকে বলেছি, কিছু বানাও না! আম্মু রান্না করে ফ্রিজে রেখে গেছে, আমাদের কখনো খেতে কোনো কষ্ট হয়নি। অনেক কষ্ট করে আম্মু আমাদের জন্য এপার্টমেন্ট গড়েছে। আম্মুকে সবসময় আমি এত দৃঢ় দেখেছি যে কখনো তাকে বিজ্ঞাপণের মাদের সাথে মেলাতে পারিনি। জানি না আমরা এমন বিজ্ঞাপণ, নাটক কবে দেখবো যেখানে এমন মাও থাকবে যারা আসলে সত্যিকারের প্রেরণা হয়ে ওঠে।

আমি এমন অনেক বাবাকে দেখেছি যারা সন্তানের জন্য চাকরি বদল করেছে। আমি নিজে ছোটবেলায় আমার মামাদের নিজের শার্ট বানাতে দেখেছি, যার কিছু নাকি আমিও পরেছি। কিন্তু বাবা আর মমতা শব্দ দুটিকে আমরা ভীষণভাবে বিচ্ছিন্ন করে ফেলি।

বিজ্ঞাপনে বাবারাও থাকে, কিন্তু কোথায়? কাপড় ধুয়ে দেয়ার জন্য হাততালি দেন। তারা বাজার করেন, গাড়ি ড্রাইভ এমনকি প্লেন ওড়ান। কিন্তু সন্তানদের সাথে তাদের কোন সংযোগ নেই। মমত্ববোধ থাকলে তা পৌরুষের জন্য কোনো সমস্যা না- কিন্তু সেটা আমরা প্রতিষ্ঠা করতে পারিনি, বরং বিজ্ঞাপণের কল্যাণে করেছি তার উল্টোটা।

আমার পরিবার আমাকে স্বাবলম্বী হতে শিখিয়েছে। ক্লাস নাইনে যখন পড়ি, একদিন রিকশায় যেতে যেতে বাবা বললো, আগামী আট বছর তোমার জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ, অনেকে তোমাকে উল্টাপাল্টা বোঝাতে চাইবে, তুমি কোনদিকে শুনবে না। শুধু পড়ালেখায় মন দিবে।

কিশোরী বয়সে একথা শুনে মনে হয়েছিল, এ কী যন্ত্রণা! কিন্তু আজ বুঝতে পারি, আমার পরিবার এতোটা দৃঢ় ছিল বলেই আজ নিজের মতো পথ চলার অনুপ্রেরণা পাই। রান্না করা, কাপড় ধোয়া, এসবকিছুর ঊর্ধ্বে একজন মা সন্তানকে তৈরি করে ভবিষ্যত যুদ্ধের জন্য। সেটাই তো সবচেয়ে জরুরি, তাই না?

 

শেয়ার করুন:
  • 7
  •  
  •  
  •  
  •  
    7
    Shares
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.