ধর্ষণকে যুদ্ধাপরাধ হিসেবে আইসিসির যুগান্তকারী ঘোষণা

উইমেন চ্যাপ্টার: ধর্ষণকে যুদ্ধাপরাধ এবং মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত (আইসিসি)।কঙ্গোর মিলিশিয়া নেতা জিন পিয়েরে বেম্বার বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলার বিচারের রায় দিতে গিয়ে আইসিসির তিন সদস্যের বিচারক প্যানেল গত সোমবার যুগান্তকারী এই রায় ঘোষণা করেন।

ICCকঙ্গোর মুভমেন্ট ফর দ্যা লিবারেশন অব কঙ্গোর প্রধান এবং দেশটির সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট  বেম্বাকে যুদ্ধাপরাধ এবং মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধের দায়ে দোষী হিসেবে সাব্যস্ত করেছে আন্তর্জাতিক এই আদালত।

আদালতের রায়ে বলা হয়েছে, কোনো সংঘবদ্ধ দলের নেতা নিজে ব্যক্তিগতভাবে ঘটনাস্থলে উপস্থিত না থাকলেও তার অধীনস্থদের অপরাধের দায়ভাগের জন্য নেতাকেও অপরাধী হিসেবে বিবেচনা করা যাবে।

প্রসঙ্গত, ২০০২ সালে প্রতিষ্ঠার পর এই প্রথম  আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত ধর্ষণকে যুদ্ধাপরাধ এবং মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ হিসেবে  রায় দিয়েছে।

তিন সদস্যের বিচারক প্যানেলের প্রধান সিলভিয়া স্টেইনার রায় ঘোষণা করতে গিয়ে মধ্য অাফ্রিকায় ২০০৩-২০০৪ সালে বেম্বার মিলিশিয়া বাহিনীর গণহত্যা এবং নারী ধর্ষণের বিবরণ তুলে ধরেন।

 

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ধর্ষণ কের বিচার হয় না বলে আজ দেশে অবিরাম ধর্ষণের উৎসব চলছে। বিচারের দ্বায়িত কার? ধর্ষিতার কষ্ট শুধু , সে শুধু নিজে জানে, আর তাই জীবন দিয়ে হলেও সে বিচার চায়। তাই আমি সেই সব দ্বায়িত শীল ব্যক্তি দের ধর্ষণের ব্যপারে লিখেছিলা, তা হলেই বিচার সম্ভব।

Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.