প্রিয়তমাকে…….

0

Priyotomaশুভদীপ দেবনাথ: গুজরাটের দাঙ্গায় ওরা যখন গর্ভবতী মায়ের পেট চিরে বার করে আনা বাচ্চাটাকে ত্রিশূলে গেঁথে পাগলের মত নেচেছিল——- আমি প্রতিবাদে যাইনি।
প্রিয়তমা তোমার কথা মত আমি ঝামেলায় যাইনি।

ওরা যখন চানু কে গারদে পুরছিল, সোনী সুরির যোনিপথে ঢুকিয়ে দিচ্ছিল পাথর, কিমবা শুধুমাত্র জিগ্বাসাবাদের নামে, আফস্পা কোন কাশ্মীরী যুবককে তুলে নিয়ে গিয়ে টকটকে লাল করে পোড়ান স্পোক ঢুকিয়ে দিচ্ছিল তার পুরুষাঙ্গের ভিতর——— তোমার কথামতো আমাদের ভবিষ্যতের কথা ভেবে তখন আমি একমনে থিসিস লিখেছি।

ওরা যখন মনিপুর আর বস্তারের মেয়েদের টেনে হিচড়ে ঘর থেকে বার করে স্তন ফুঁড়ে দিচ্ছিল ধারালো বেয়নেটে———- ঠিক তখনি আমি শেষবারের মতো চেক করে নিচ্ছিলাম পেন, পেন্সিল, ইরেজার তোমার আমার আগামী জীবনের কথা ভেবে, পরীক্ষার জন্য, প্রিয়তমা।

ওরা যেদিন যাদবপুরে পুলিশ নামাল, প্রেসিডেন্সিতে বর্শা ছুঁড়ে দিল, ওরা যেদিন রোহিতকে খুন করল———— তোমার কথামতো আমি মিছিল টপকে ইন্টার্ভিউয়ে গেছি, “বেকার ঝামেলায়” না গিয়ে নিশিন্তে থেকেছি।

কোন কারণ ছিলনা, শুধু ইচ্ছে হয়েছে বলেই কাল রাতে একটানে ওরা তোমার শাড়ী খুলে নিয়েছে। কোন কারণ ছিলনা, শুধু ইচ্ছে হয়েছে বলেই, জ্বলন্ত সিগারেট চেপে ধরেছে তোমার নাভীতে, তলপেটে। ব্যথায় ককিয়ে উঠেছ তুমি। ওরা থামেনি, একশো দশটা নখ ফালাফালা করেছে তোমার শরীর।পরপর এগারজন….
তোমার গোঁড়ালি বেয়ে চুঁইছে রক্ত———

আমি গলার টাইটা ঠিকঠাক বেঁধে নিচ্ছি প্রিয়তমা। ঝামেলায় না জড়ানোটা, নিশিন্তে থাকাটা আজকাল আমার নেশাতুর অভ্যাস। আগামীর সুখের দায়ে সব মিছিল, প্রতিবাদ, প্রতিরোধ টপকে আজ আমার জড়ত্ব স্বার্থক। আজ আমার মোটা মাইনের প্রথম দিন।

(লেখকের ফেসবুক পোস্ট থেকে সংগৃহীত)

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

লেখাটি ২১৪ বার পড়া হয়েছে


উইমেন চ্যাপ্টারে প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। এই সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় উইমেন চ্যাপ্টার বহন করবে না। উইমেন চ্যাপ্টার এর কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না।

Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.