অন্তরালের মানুষ এখন অসীম অন্তরীক্ষের পথে

0

Naser Sirলুসিফার লায়লা: ছোট বেলায় মানতে খুব কষ্ট হয়েছে, দাঁত উঁচু, মাথা ভরা সাদা চুলের মানুষটা আমার ছোট ফুপুর বর। তখনও বর বললে রাজপুত্র না হলেও নিদেনপক্ষে নায়কোচিত চেহারা থাকাই হয়ত বাঞ্ছণীয় ছিল। বড় হতে হতে ছোট ফুপুর বর মিন্টু ফুপা হয়েছে সবচাইতে প্রিয় বন্ধুদের একজন। কত শত যুক্তি তর্ক, ভিন্ন মত নিয়েও ছোট ফুপাই হয়েছে অভিন্ন মনের আশ্রয়।
দেশে বসে বিশ্বমানের গবেষণা করবেন এমন জেদ থেকে গেলেন না দেশের বাইরে কোথাও, এতো এতো সুযোগের হাতছানি থাকার পরেও। খুবই সাফল্যের সাথে সম্ভব করলেন দেশে বসে নিজের বিশ্বমানের গবেষণার কাজ। বাংলাদেশের ভেতরে কে কবে এত খোঁজ রেখেছে এত বড় মাপের এই পরিসংখ্যানবিদকে নিয়ে।
বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের নিয়ে তুমুল আলোচনার ঝড় হলেও এবং নিজের অনেক তিক্ত অভিজ্ঞতার পরেও মনে হয়েছে মোহাম্মদ নাসেরের মত ছাত্র বান্ধব, গবেষণায় উৎসাহী, সৎ এবং সাহসী শিক্ষকও তো আমাদের আছেন, এ সত্য জেনেছি বলেই শিক্ষক সমাজের উপর আস্থা হারাতে পারিনি। দেশের শিক্ষা ব্যাবস্থার মান উন্নয়নের জন্যে নিজের চেষ্টায় চালিয়েছেন গবেষণা।
তরুণদের সাথে ক্রমাগত যোগাযোগ রক্ষা করে বুঝতে চেষ্টা করেছেন দেশের আগামী দিনের নির্মাণ কর্মীরা কী ভাবছেন দেশ নিয়ে! নির্দ্বিধায় তরুণদের থেকে গ্রহণ করবার যে মানসিক বিরাটত্ব, এটা বড় দুর্লভ।
সিপিবির সৎ এবং একনিষ্ঠ কর্মীর তালিকা করতে হলে মোহাম্মদ নাসের সবার আগে আসবেন। পার্টির মেম্বার হবার সুবাদে নিজের সব রকম আয়ের নিয়ম অনুযায়ী একটা অংশ অত্যন্ত সততার সাথে মিটিয়েছে এমন পার্টি কর্মী কয়জন আর আছে আমি জানি না। বিশ্বব্যাপী সমাজতন্ত্রের সঙ্কট, সাফল্য, সর্তকতা সত্ত্বেও নিরন্তর কাজ করেছেন। জোজোভা বিপ্লবে নারীর ভূমিকার নিরিখে বার বার পর্যালোচনায় দেখিয়েছেন নারী নেতৃত্বের বিকাশের পথ এবং সম্ভাবনা। গণ মুক্তি থেকে গণ জাগরন কোথায় ছিল না তার সাহসী পদচারণা। এমন দেশপ্রেমিক মানুষ তো নেই খুব বেশী আর।
নিজের শারীরিক বাধা তাঁকে কোনদিন কাবু করতে পারেনি। সামাজিক রাজনৈতিক, পারিপার্শ্বিক বাধাও কোনদিন থামিয়ে দিতে পারেনি তার অদম্য সাহস এবং কর্মস্পৃহা। অশক্ত শরীর নিয়ে সমস্ত বাধা অতিক্রম করে শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত যে মানবমুক্তির লড়াইটা তিনি লড়ে গেছেন, কোন রকম লাভ, লোভ, স্বীকৃতি,পুরস্কারের আশার প্রতি পাহাড় সমান উঁচু নির্মোহ দেখিয়ে কাটিয়ে দিয়ে গেছেন একটা জীবন।

তাতে করে এখন যখন ছোট ফুপাকে দেখি তখন, নায়কোচিত মুখ মনে করতে বললে আমার ছোট ফুপার মুখই মনে হয়। চিরকালের রুগ্ন শরীরের মানুষ, নিধিরাম সর্দার আমার ছোট ফুপাকেই আমি বীরের আসনে দেখি। পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ শিক্ষকের মুখে আঁকা থাকে আমার ছোট ফুপার মুখ। প্রকৃত মানুষের মুখ মনে করতে বললে যে মুখগুলো আপনা থেকেই বিলবোর্ডের ছবি হয়ে মনের রাজপথে শোভা দেয়, সেখানে ছোট ফুপা সবচাইতে এগিয়ে।
খুব চুপচাপ, কোন রকম কিছু তার জন্যে করার কোন সুযোগ না দিয়ে গতকাল চলে গেলেন। খুব শরীর খারাপ নিয়েও শুধু কর্তব্যের তাগিদে নয়, প্রবল ভালবাসা থেকেই গিয়েছিলেন তার কর্মক্ষেত্রে। সেখান থেকেই চিরকালের জন্যে দূর অন্তরীক্ষের দিকে পথ হাঁটতে শুরু করেছেন। আর কোন জন্ম নেই, আর কোনদিন দেখা হবার কোন সম্ভাবনা নেই, তবু কোনো কোনো রাতের আকাশে সবার অলক্ষে জ্বলতে থাকা উজ্জ্বল তারাটার দিকে তাকিয়ে বাতাসের কানে কানে ডাকবো –
ছোট ফুপাআআআআআআআআআআআআআআআআআআআআ।

বি. দ্র. রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান বিভাগের চেয়ারম্যান ও রাজশাহী জেলা সিপিবির সভাপতি ড মোহাম্মদ নাসেরের অকাল প্রয়াণে উইমেন চ্যাপ্টার এর পক্ষ থেকে আমরাও শোক জানাই। বর্তমান সময়ে এমন একজন একনিষ্ঠ মানুষের খুব প্রয়োজন ছিল।

শেয়ার করুন:
  • 22
  •  
  •  
  •  
  •  
    22
    Shares

লেখাটি ১,৫৮৭ বার পড়া হয়েছে


উইমেন চ্যাপ্টারে প্রকাশিত সব লেখা লেখকের নিজস্ব মতামত। এই সংক্রান্ত কোনো ধরনের দায় উইমেন চ্যাপ্টার বহন করবে না। উইমেন চ্যাপ্টার এর কোনো লেখা কেউ বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করতে পারবেন না।

Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.