ভারতের তিনটি প্রদেশে ভয়াবহ বন্যায় সাড়ে ৫শ নিহত

FloodRescueউইমেন চ্যাপ্টার ডেস্ক (২২ জুন): ভারতের উত্তরাখন্ড, হিমাচল ও উত্তরপ্রদেশ রাজ্যে প্রবল বৃষ্টিপাতে সৃষ্ট বন্যা ও ভূমিধসে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে সরকারি হিসাব মতে ৫৫৬ জন। এখনো প্রায় ১৪ হাজার মানুষ ‘নিখোঁজ’ রয়েছে বলে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে বলা হয়েছে।
উত্তরাখন্ডের বন্যা উপদ্রুত এলাকায় আটকে পড়া অসংখ্য মানুষকে উদ্ধারের জন্য ব্যাপক তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছেন উদ্ধারকর্মীরা। আশংকা করা হচ্ছে, এখানে প্রায় ৫০ হাজার মানুষ আটকা পড়েছে। উদ্ধারকারীরা বলছেন, ভূমিধস ও ধসে পড়া সড়কের কারণে উদ্ধার তৎপরতা ব্যাহত হচ্ছে। আটকে পড়া এমন কয়েকজন এনডিটিভি নিউজ চ্যানেলকে জানিয়েছেন, গত পাঁচদিন ধরে তাদের কাছে কোনো খাবার নেই।

স্থানীয় সরকারি কর্মকর্তারা বলছেন, আটকে পড়াদের প্রয়োজনীয় খাবার ও বিশুদ্ধ খাবার পানি সরবরাহ করা অত্যন্ত জরুরি হয়ে পড়েছে। এদের অধিকাংশই কেদারনাথ ও বদ্রিনাথ দর্শনে আসা তীর্থযাত্রী ও পর্যটক।
এ পর্যন্ত প্রায় ৩৩ হাজার তীর্থযাত্রী ও পর্যটককে উদ্ধার করে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেয়া হয়েছে বলে জানান ভারতের তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী মানিশ তেওয়ারি। শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরো জানান, আটকে পড়া লোকজনকে সরিয়ে নিতে বিনা ভাড়ায় বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

উদ্ভুত পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য জাতীয় ত্রাণ তহবিলে মুক্ত হস্তে দান করতে আহ্বান জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং।
এদিকে উদ্ধারকাজে প্রযুক্তিগত সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে সার্চ ইঞ্জিন ‘গুগল’। নিখোঁজ আত্মীয়স্বজনকে খুঁজে পেতে সহায়তা করার জন্য ‘পার্সন ফাইন্ডার’ নামে একটি নতুন অ্যাপ্লিকেশন চালু করেছে ইন্টারনেটের এই সর্ববৃহৎ সার্চ ইঞ্জিনটি।

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.