ইরানের কার্টুনিস্টের ১৪ বছরের কারাদণ্ড

Atenaউইমেন চ্যাপ্টার: ইরানের চিত্রশিল্পী এবং নারী অধিকার কর্মী আতেনা ফারঘাদানিকে গত ২৮ মে এক রায়ে ১৪ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে দেশটির একটি আদালত। ২৯ বছর বয়সী এই চিত্রশিল্পী তার চিত্রকর্ম এবং অ্যাক্টিভিজমের মধ্য দিয়ে বর্তমান শাসনের বিরুদ্ধে প্রচারণা চালানো, পার্লামেন্ট সদস্যকে অপমান এবং দেশটির সুপ্রিম নেতাকে অপমান করেছেন বলে অভিযোগ আনা হয়েছে।

জন্মনিরোধক-বিরোধী বিলের সমর্থনকারী রাজনীতিবিদদের পশুর সাথে তুলনা করে ব্যাঙ্গাত্মক কার্টুন ফেসবুকে পোস্ট করার কারণে এ বছর জানুয়ারিতে আতেনাকে গ্রেপ্তার করে ইরানের রেভল্যুশনারি গার্ড। এর আগেও তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল ২০১৪ সালের নভেম্বরে এবং দুমাস আটকে রেখে মুক্তি দিয়েছিল। মুক্তি পেয়েই তিনি তার এই বন্দী জীবন নিয়ে গণমাধ্যমের সামনে কথা বলায় এবং কারাগারের অবস্থা নিয়ে একটি ভিডিও ইউটিউবে পোস্ট করার পর আবারও তাকে আটক করা হয়। এসময় তিনি অনশন শুরু করেন এবং একপর্যায়ে তার হার্ট অ্যাটাক হয়। খাবার খেতে না চাওয়ার শাস্তি হিসেবে আতেনাকে এভিন কারাগার থেকে একটি ডিটেনশন সেন্টারে সরিয়ে আনা হয়।

আতেনা নিজেসহ নারী অধিকার কর্মীরা বলছেন, নতুন এই বিলটি পাস হওয়া নিয়ে তারা আতংকিত। এতে করে নারীর বিরুদ্ধে বৈষম্য আরও প্রকট আকার নেবে।

আতেনার বিচারের আগে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের ক্যাম্পেইনাররা গত ১৮ মে লন্ডনে ইরানের কনস্যুলেটের সামনে জমায়েত হয়ে বিক্ষোভ করেন। বিক্ষোভকারীরা দ্রুত মুক্তি দাবি করেন আতেনার এবং ৩৩ হাজারেরও বেশি স্বাক্ষরসহ পিটিশন উপস্থাপন করেন সেখানে।

শেয়ার করুন:
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.