নারীর ক্ষমতায়নের কোন বিকল্প নেই: ফ্রিডা মিরিকলিস

frida miriklisউইমেন চ্যাপ্টার ডেস্ক (১৮ জুন): নারীর ক্ষমতায়নের পন্থা নির্ধারণে আলোচনা হয়েছে ১০ তম কমনওয়েলথ নারী মন্ত্রীদের মিটিংএ। মঙ্গলবার বিকালে সম্মেললনের দ্বিতীয় দিন শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে দুই দিনের মিটিংএর সারসংক্ষেপ তুলে ধরেন ইন্টারন্যাশনাল ফেডারেশান অব বিজনেস অ্যান্ড প্রপেফেশনাল উইমেন-এর প্রেসিডেন্ট ফ্রিডা মিরিকলিস।

তিনি বলেন, ‘নারীর ক্ষমতায়নের কোন বিকল্প নেই। নারী শুধু সন্তান বা পরিবারের জন্য নয় বরং সমাজ ও রাষ্ট্রের উন্নয়নেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।’

তিনি জানান, সম্মেলনের দ্বিতীয় দিন নারীর অর্থনৈতিক ক্ষমতায়ন নিয়ে ইতিবাচক আলোচনা হয়েছে।

নারীর ক্ষমতায়নে বাংলাদেশের ইতিবাচক পদক্ষেপের কথা তুলে ধরা সহ তিনি বিভিন্ন দেশে নারী উদ্যোক্তাদের উৎসাহিত করতে বিভিন্ন পদক্ষেপের কথাও তুলে ধরেন।

সম্মেলনে মিরিকলিস ‘উইমেন লিডারশিপ অ্যান্ড ডেমোক্রেসি ইন দ্যা কমনওয়েলথ’ শীর্ষক একটি প্রবন্ধ পাঠ করেন।’

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন কমনওয়েলথ বিজনেস কাউন্সিলের উপদেষ্ঠা আরিফ জামান, এলিভেশান নেটওয়ার্কের প্রতিষ্ঠাতা তরুণ নারী উদ্যোক্তা বারবারা কাসমু, তথ্য অধিদপ্তরের কর্মকর্তা মো. জাহাঙ্গীর হোসেন।

আরিফ জামান বলেন, ‘এই সম্মেলন নারীর অর্থনৈতিক উন্নয়নেই নয় বরং দেশের সামগ্রিক অর্থনৈতিক উন্নয়নেও ভূমিকা রাখবে।’

আরিফ জামান কমনওয়েলথ বিজনেস কাউন্সিল ও দ্যা এসোসিয়েশান অব চার্টার্ড সার্টিফাইড একাউন্টস’এর যৌথ উদ্যোগে প্রস্তুত ‘পেভিং দ্যা ওয়ে টু অপরচুনিটিস উইমেন ইন ইন লিডারশিপ অ্যাক্রস কমনওয়েলথ’ শীর্ষক এক প্রতিবেদন পাঠ করেন।

সংবাদ সম্মেলনে বারবারা কাসমু তরুণ নারী উদ্যোক্তা হিসেবে নিজের অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরে বলেন, ‘তরুণ প্রজন্মকে আরো উৎসাহিত করতে হবে’

বুধবার ঢাকা ঘোষনার মধ্যদিয়ে তিনদিনব্যাপি এই আন্তর্জাতিক সম্মেলনটি শেষ হবে।

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.