কেবল শ্লীলতাহানিই নয়, এটা প্রকাশ্যে ধর্ষণ

Delhi Rapeঅনন্য আজাদ: “গতকাল বৈশাখের প্রাণোচ্ছল দিনে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের গেইটে কয়েকজন নারীর সাথে যে ঘটনাটি ঘটেছে তা শ্লীলতাহানি নয়, প্রকাশ্যে ধর্ষণ। শ্লীলতাহানি শব্দটি ব্যবহার করে আমরা ঘটনাটি ছোট্ট করার চেষ্টা করি কিন্তু যাদের সাথে ঘটে তারা জানে কীরূপ পরিস্থিতির ভেতর দিয়ে তাদের যেতে হয়েছে। গতকালই যে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের গেইটে প্রথম এমন ঘটনাটি ঘটেছে তা নয়, এ বছর ২১শে ফেব্রুয়ারি, ১৪ই ফেব্রুয়ারিও ঘটেছিল।

প্রতিবারই ঘটনাস্থল থেকে কিছুদূরেই থাকে পুলিশবাহিনী। কিন্তু তাদের সাহায্য সহযোগিতা কখনই সাধারণ মানুষের পক্ষে ছিল না। যেমনটা গতকালও পুলিশ এগিয়ে আসেনি আক্রমণের শিকার হওয়া নারীদের কাছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় পাহারায় থাকা পুলিশেরা কীরূপ দায়িত্বজ্ঞানহীন সেটা লেখক অভিজিৎ রায়ের হত্যাকাণ্ডের সময়ও সকলেই দেখেছিল।

আমি সেই বখাটে উচ্ছৃঙ্খল সংঘবদ্ধ দলটির শুধু গ্রেপ্তার চাই না; আমি চাই, সে সময়ে দায়িত্বে থাকা সেইসব পুলিশ সদস্যের- যাদের চোখের সামনে দিয়ে এমন ন্যাক্কারজনক ঘটনাটি ঘটেছিল, তাদেরও উপযুক্ত শাস্তি। কারণ তাদের পরোক্ষ সহযোগিতা ব্যতীত জনসম্মুখে ‘ধর্ষণ’ করা সম্ভব হতো না। এই বখাটে দলটি কতটা ভয়ংকর সেটা সোহরাওয়ার্দীতে সামনে থেকে না দেখলে কেউ বুঝবে না। তারা হুটহাট নারীর বুকে-নিতম্বে হাত দিয়ে বসে, শাড়ি টেনে খুলে, স্বামী ও স্ত্রী একসাথে থাকলে পাকিস্তানিদের মতই ধর্ষণে মেতে ওঠে, দামি জিনিসপত্র কেড়ে নেয়, আরও ভয়াবহ রকমের নিম্নমানের কাজ করে।

এ বছর ২৭ শে ফেব্রুয়ারী বইমেলা থেকে বের হওয়ার সময় একদল সংঘবদ্ধ সন্ত্রাসী আমাকে ঘেরাও করে মোবাইলটি নিয়ে গেলে আমি শাহবাগ থানায় সাধারণ ডায়েরি করতে গিয়েছিলাম। ওখানে দায়িত্বে থাকা পুলিশ কর্মকর্তা টি মুচকি হাসি দিয়ে বলেন, “ওখানে (বইমেলার গেইটে) তো ১০টি ছিনতাই-গুণ্ডা দল কাজ করছে”। কথাটি শোনার পর আমি আর জিডি করিনি। অর্থাৎ শাহবাগ থানার পুলিশ আগে থেকেই জানে, কোন কোন সন্ত্রাসী দল সেখানে আছে! কিন্তু তারা দায়িত্ব পালনে অপারগ। এবং “কাজ করছে” শব্দদ্বয় অপমানজনক ছিল। সন্ত্রাসীরা সাহস পায় পুলিশের কাছ থেকে। ভাগাভাগি করে সন্ত্রাসী ও পুলিশ এখন এক সাথে চলে। এদের মধ্যে নৈতিকতা, আদর্শ, মানবিকতার যথেষ্ট অভাব আছে।

যখন রাষ্ট্র সাধারণের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হয় তখন সাধারণেই আইন নিজের হাতে নিতে হয়।”

(ফেসবুক থেকে সংগৃহীত)

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.