গর্ভপাতের অভিযোগে যুক্তরাষ্ট্রে ২০ বছরের দণ্ড

Miscarriageউইমেন চ্যাপ্টার: যুক্তরাষ্ট্রের ইন্ডিয়ানা অঙ্গরাজ্যে এই প্রথমবারের মতো ৩৩ বছর বয়সী এক নারীকে ইচ্ছাকৃতভাবে বাচ্চা নষ্ট করা এবং দায়িত্ব না নেয়ার অভিযোগে ২০ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। ঘটনাটি ২০১৩ সালের। প্রথমে তাকে ৩০ বছরের দণ্ড দেয়া হলেও পরে তা কমিয়ে ২০ বছর করা হয়।

আইনজীবীরা বলছেন, পূরবী প্যাটেল নামের ওই নারী ২৫ সপ্তাহের অন্ত:সত্ত্বা ছিলেন। পূরবী যখন হাসপাতালের জরুরি কক্ষে ঢুকেন, তখন তিনি রক্তে ভেসে যাচ্ছিলেন। বাসার বাথরুমে অপ্রত্যাশিতভাবে বাচ্চাটির জন্ম হয়ে যাওয়ায় তড়িঘড়ি করে তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। তারা আরও জানান, পূরবী প্রাথমিকভাবে তার গর্ভাবস্থার কথা অস্বীকার করেন। কিন্ত প্রচুর রক্তক্ষরণসহ সেন্ট জোসেফ হাসপাতালে ভর্তির পর ধীরে ধীরে স্বীকার করেন যে, তার গর্ভপাত হয়েছে এবং তিনি শিশুটিকে একটি প্লাস্টিক ব্যাগে করে আবর্জনা ফেলার জায়গায় ফেলে দিয়েছেন।

পূরবীর আইনজীবীরা জানান, রক্ষণশীল হিন্দু পরিবারের মেয়ে পূরবী তার গর্ভাবস্থার কথা লুকিয়েছিলেন বাবা-মায়ের কাছ থেকে। কিন্তু যখন তার প্রসব ব্যথা শুরু হয় তখন ভয় পেয়ে যান। ইন্ডিয়ানার সাউথ বেন্ডে একটি বাড়িতে থাকতেন পূরবী। তার সাথে তার বাবা-মা এবং অসুস্থ দাদা-দাদীও থাকতেন। পরিপক্ক ভ্রুণ হত্যার অভিযোগে এই প্রথম ইন্ডিয়ানার আদালতে দোষীসাব্যস্ত করা হলো। তবে মানবাধিকার কর্মীরা এই ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। তাদের মতে, এ ধরনের অভিযোগ আনা মানে, গর্ভপাত-বিরোধী আইনের অপপ্রয়োগ ঘটবে গর্ভবতী নারীদের শাস্তি দেয়ার ক্ষেত্রে।

মেরিল্যান্ড ইউনিভার্সিটির একজন অ্যাক্টিভিস্ট দীপা আয়ার বলছিলেন, গর্ভপাত এবং চিকিৎসা সেবা চাওয়া, এ দুটোই পূরবীকে শাস্তি দেয়ার কারণ। পূরবী যদিও দাবি করেছেন, তিনি মৃতশিশু প্রসব করেছিলেন, কিন্তু আইনজীবীদের দাবি, শিশুটি জীবিতই জন্ম নিয়েছিল। তার অবহেলার কারণেই বাচ্চাটি শেষপর্যন্ত মারা যায়। আইনজীবীরা আরও দাবি করেন যে, পূরবী অনলাইনে গর্ভপাতের জন্য নির্দ্দিষ্ট ওষুধ অর্ডার করেছিলেন এবং গর্ভপাতের চেষ্টা চালিয়েছিলেন। যদিও আইনজীবীদের এই দাবির পক্ষে কোনো সাক্ষ্যপ্রমাণ মেলেনি।

তিনিই প্রথম নন, এর আগে ২০১১ সালে একজন চীনা-আমেরিকান নারীও একই অভিযোগে দণ্ডিত হয়ে একবছর কারাগারে কাটিয়েছিলেন। চীনা সেই নারী বিষন্নতার রোগী ছিলেন এবং অন্ত:সত্ত্বা অবস্থায় আত্মহত্যার চেষ্টাও করেছিলেন। তবে তিনি বেঁচে গেলেও গর্ভস্থ বাচ্চাটি মারা যায়।

 

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.