চার সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দলের ভরাডুবি

উইমেন চ্যাপ্টার ডেস্ক (১৬ জুন): দেশের চার সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনে ভরাডুবি হয়েছে ক্ষমতাসীন দল সমর্থিত প্রার্থীদের। এদিকে, নির্বাচনে ‘জনগণের রায়’ মেনে নিয়ে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি না করার জন্য সবার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ।
সিলেটে বিএনপি নেতা আরিফুল হক চৌধুরী, বরিশালে আহসান হাবিব কামাল, রাজশাহীতে মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল ও খুলনায় মনিরুজ্জামান মনি বেসরকারিভাবে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন।
চার শহরেই গত মেয়াদে মেয়রের দায়িত্ব পালন করা চারজন আওয়ামী লীগ নেতা পরাজিত হয়েছেন ১৭ থেকে ৬০ হাজার ভোটের ব্যবধানে।
ক্ষমতাসীন দলের সভাপতিমণ্ডলীর এক সদস্য এই পরাজয়কে দেখছেন আগামী জাতীয় নির্বাচনে মহোজোট সরকারের জন্য একটি ‘সতর্ক সংকেত’ হিসাবে। অন্যদিকে বিএনপি এই বিজয়কে সরকারের বিরুদ্ধে ‘জনগণের বিপ্লব’ হিসেবে উল্লেখ করেছে।
ফল ঘোষণার পরপরই চার শহরে বিজয়ী প্রার্থীদের কর্মী-সমর্থকদের উল্লাসের খবর পাওয়া গেছে।
বড় কোনো গোলযোগ ছাড়াই শনিবার সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত রাজশাহী, সিলেট, খুলনা ও বরিশালে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে স্বতস্ফূর্ত ভোটগ্রহণ চলে। চার শহরে ১২ লাখেরও বেশি ভোটারের মধ্যে প্রায় ৬৯ শতাংশ মানুষ ভোট দেন।
বিকাল ৫টার পরপরই চার সিটিতে ইভিএমে ভোট হওয়া কেন্দ্রগুলোর ফল ঘোষণা করা হয়। রাত ১১টার দিকে চূড়ান্ত ফল আসে সিলেটে। এরপর একে একে বরিশাল ও সিলেটের ফল ঘোষণা করা হয়। সর্বশেষ রাত পৌনে ২টার দিকে খুলনা সিটি কর্পোরেশনের বেসরকারি ফল ঘোষণা করেন দায়িত্বপ্রাপ্ত রিটার্নিং কর্মকর্তা।
আওয়ামী লীগ নেতা ওবায়দুল কাদের শনিবার রাতেই ফেইসবুকে এক স্ট্যাটাসে লিখেছেন, “ওয়েক আপ কল ফর দ্যা রুলিং পার্টি…।
অন্যদিকে চার সিটি কর্পোরেশনের সবকটিতে এই পরাজয়কে সরকারের জন্য ‘সতর্ক বার্তা’ বলে মনে করছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ওবায়দুল কাদের।
শনিবার রাতে তার ফেইসবুক পেইজে এক স্ট্যাটাসে লেখা দেখা যায়, “ওয়েক আপ কল ফর দ্যা রুলিং পার্টি…।”

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.