নাদিয়া পাচ্ছেন সাহসী নারীর পুরস্কার

Nadia 2উইমেন চ্যাপ্টার: যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দফতরের ‘আন্তর্জাতিক নারী সাহসিকতার পুরস্কার’ (ইন্টারন্যাশনাল উইমেন অফ কারেজ অ্যাওয়ার্ড-আইডব্লিউওসি) পাচ্ছেন বাংলাদেশের সাংবাদিক নাদিয়া শারমিন।

মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের আয়োজনে বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সময় রাত বারোটায় ওয়াশিংটন ডিসিতে সেদেশের উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিদার এ হিগিনবটমের নাদিয়াসহ বিশ্বের দশজন সাংবাদিকের হাতে এই পুরষ্কার তুলে দেওয়ার কথা ছিল।  কিন্তু তুষারপাত ও দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে অনুষ্ঠানটি বাতিল করা হয়েছে। পরে অনুষ্ঠানের সময়সূচী জানানো হবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

২০১৩ সালের এপ্রিলে ঢাকায় হেফাজতে ইসলামের সমাবেশ কভার করতে গিয়ে মৌলবাদি সন্ত্রাসীদের হামলার শিকার হয় নাদিয়া। সে সময় একুশে টেলিভিশনের প্রতিবেদক ছিলেন তিনি। ওই ঘটনার পর তাকে কাজ থেকে বিরত রাখে একুশে টেলিভিশন কর্তৃপক্ষ। তার চিকিৎসার খরচ দিতেও অস্বীকার করা হয়। এবং শেষ পর্যন্ত তাকে পদত্যাগে বাধ্য করা হয়।

আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে ‘আইডব্লিউওসি’ বিশ্বের সেইসব অসাধারণ নারীদের সাহসিকতার জন্য পুরস্কৃত করে থাকে যারা নিজ নিজ সমাজকে বদলাতে বিশেষ ভূমিকা রেখেছেন।  নাদিয়া শারমিন দ্বিতীয় বাংলাদেশী নারী হিসেবে এই সম্মানজনক স্বীকৃতি লাভ করছেন। এর আগে ২০০৫ বাংলাদেশের সাংবাদিক সুমি খান সাহসিকতার স্বীকৃতিস্বরূপ যুক্তরাষ্ট্রের ইন্টারন্যাশনাল উইমেন ইন মিডিয়া ফাউন্ডেশনের ‘কারেজ ইন জার্নালিজম পুরস্কার’ পেয়েছিলেন।

এদিকে ঢাকার মার্কিন দূতাবাসের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, নাদিয়া  শারমিনসহ পুরস্কার প্রাপ্তরা ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামা ও যুক্তরাষ্ট্র সরকারের বিশিষ্ট ব্যক্তিদের সঙ্গে দেখা করবেন। তারা যুক্তরাষ্ট্র পররাষ্ট্র দফতরের বিভিন্ন কর্মসূচিতে অংশ নিবেন এবং যুক্তরাষ্ট্রের  নারী সাংবাদিক ও অনান্য ক্ষেত্রের সফল নারী নেতৃত্ব ও নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সদর দপ্তরে অনুষ্ঠেয় ‘৫৯তম কমিশন অফ দ্য স্ট্যাটাস অফ উইমেন’ সম্মেলনে সারা বিশ্বের নারী অধিকার কর্মীদের সঙ্গেও সাক্ষাৎ করবেন।

নাদিয়া শারমিন বর্তমানে একাত্তর টেলিভিশনে রিপোর্টার হিসেবে কাজ করছেন।

উইমেন চ্যাপ্টারের পক্ষ থেকে নাদিয়াকে অভিনন্দন।

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.