অভিনন্দন সাবিনা খাতুন

Sabina Khatun
সাবিনা খাতুন

উইমেন চ্যাপ্টার: অভিনন্দন সাবিনা খাতুন। বাংলাদেশ ন্যাশনাল উইমেন্স ফুটবল টিমের স্ট্রাইকার সাবিনা খাতুন প্রথম বাংলাদেশি নারী ফুটবলার, যিনি বিদেশি কোন ক্লাবে খেলতে যাচ্ছেন। তিনি মালদ্বীপ পুলিশ ক্লাবে খেলবেন ১৪ মার্চ থেকে ১৭ এপ্রিল পর্যন্ত।

এর আগে সত্তরের দশকে বাফুফের বর্তমান প্রেসিডেন্ট এবং সেলিব্রিটি জাতীয় স্ট্র্রাইকার কাজী সালাহউদ্দিন হংকং প্রফেশনাল লিগের স্থানীয় টিম ক্যারোলিনা হিল এফসিতে খেলতে গিয়েছিলেন। এরপরে অবশ্য মোনেম মুন্না কলকাতার ইস্ট বেঙ্গল ক্লাবে খেলেছেন। তার সাথে সাথে শেখ মোহাম্মদ আসলাম, রুম্মান ওয়ালি বিন সাব্বিরসহ আরও অনেকেই কলকাতা লিগে খেলার সুযোগ পেয়েছেন। গত মৌসুমেই ইন্ডিয়ান সুপার লিগে আতলেতিকো ডি কলকাতায় যোগ দেন মামুনুল ইসলাম মামুন। কিন্তু দেশের বাইরের মাটিতে কোন লিগে নারী ফুটবলার হিসেবে প্রথম সাবিনাই যোগ দিতে যাচ্ছেন।

ফুটবলের মাঠেও নারীর অংশগ্রহণ ও কৃতিত্ব বাড়াতে একটি মাইলফলক রচনা করলেন সাবিনা। এবারের বিশ্ব নারী দিবসের প্রাক্কালে বাংলাদেশের প্রথম নারী ফুটবলার হিসেবে বিদেশি লিগে খেলার সুযোগ পেয়ে শুধু নিজেকেই না, বিশ্ব ক্রীড়াঙ্গনে দেশকেও নিয়ে গেলেন নতুন উচ্চতায়।

২১ বছর বয়সী সাবিনা সাতক্ষীরার মেয়ে। বুধবার বিকেলে তিনি মালদ্বীপের উদ্দেশে রওনা হচ্ছেন।  গত আটটি টুর্নামেন্টে সাবিনা ১০টি আন্তর্জাতিক গোল পেয়েছেন, এছাড়া গত পাঁচ বছরে জাতীয় এবং স্থানীয়ভাবে পেয়েছেন ১১৬টি গোল। ন্যাশনাল উইমেন্স ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপে তিনি যোগ দেন ২০০৯ সালে।

মালদ্বীপ পুলিশ ক্লাব চুক্তি অনুযায়ী অর্থ ছাড়াও আসা-যাওয়ার ভাড়া এবং সেখানে থাকার সম্পূর্ণ খরচ বহন করছে।  মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে বাফুফের নারী শাখার ডেপুটি চেয়ারপার্সন এবং এফসি নির্বাহি কমিটির সদস্য মাহফুজা আক্তার কিরণ বেশ গর্বের সাথে সাবিনাকে পরিচয় করিয়ে দেন সবার সাথে।

এসময় কিরণ বলেন, ‘আমরা খুবই খুশি যে একজন বাংলাদেশি নারী প্রথমবারের মতো বিদেশের মাটিতে খেলতে যাচ্ছেন। এর মানে হচ্ছে বাংলাদেশের নারী ফুটবলের উন্নয়ন ঘটছে। সংবাদ সম্মেলনে সাবিনা বলেন, এটা তার জন্য বড় একটা প্রাপ্তি তার পাঁচ বছরের ক্যারিয়ারে। দেশের সুনাম ধরে রাখতে তিনি সর্বোচ্চ চেষ্টা করবেন বলেও জানান। তিনি জানান, যে ক্লাবে তিনি যোগ দিতে যাচ্ছেন সেটি গত বছর রানার আপ হয়েছিল। কাজেই ক্লাবের ফলাফল আরও ভাল করার প্রত্যাশাই তার থাকবে।

সাবিনা জানান, গত বছর পাকিস্তানে তৃতীয় সাফ উইমেন্স চ্যাম্পিয়নশিপে খেলতে গিয়ে তিনি মালদ্বীপের বিপক্ষে দুটি গোল করেছিলেন। হয়তো সেখান থেকেই তারা তাকে পছন্দ করেছেন। মালদ্বীপ ফুটসাল ফুটবল ফিয়েস্তা ২০১৫ তে মোট ১৪টি টিম অংশ নেবে।

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.