লিপস্টিক মার্কা নারীবাদীরা দূরে থাকুন

Canada Tribalsতামান্না কদর: বেশ কতোদিন দেখলাম এবং এখনো দেখছি আমার পোস্টে আস্তিকরা ইচ্ছেমতো গালিপূর্ণ মন্তব্য দিচ্ছে। ইনবক্স তো আছেই, সেখানে হেন বাজে কথা নেই যা লিখে না, যৌন প্রস্তাব পর্যন্ত। বিষয়টা আগে একবার পোস্টে লিখলে এক অতি শুভ্যার্থী(!) বললেন— ‘আপনাকে কারো ভালো লাগলে সে প্রস্তাব দিতেই পারে এতে দোষের কিছু নেই।’

আমি বলি- আছে, কেননা এরা এগুলি ইনবক্স করেছে আমার পোস্ট তাদের পছন্দ হয়নি বলে, আমাকে অপমান করার উদ্দেশ্যে। তাছাড়া শুধু ফেবুর পরিচয়ে কোনো সভ্য মানুষ যৌনপ্রস্তাব দিতে পারে? কোনো কোনো আস্তিক আবার একটু ভদ্র গোছের বলে, গালি না দিয়ে নসিহত করে গেছে ক্রমাগত। এরা যখন বুঝে গেলো, নসিহত করে কাজ হবে না তখন ভদ্রতার আবরণটা ফেলে পুরনো কায়দা অনুসরণ করলো। সাময়িক খারাপ লাগলেও এগুলোকে বাতিল মালের খাতায় নাম লিখে রেখে দিয়েছি, আবার কারোকে করুণা করে একটুখানি আশ্রয়ও দিয়েছি আমার ওয়ালে লিখবার।

জানতে চাই এইসব কু-মানুষদের কাছে আমার বন্ধু তালিকায় আসতে কে বলেছিলো? ভাল না লাগলে বেরিয়ে যাওয়া উচিত। সবকিছুর পর এদের জন্যে অশেষ করুণা। কিন্তু————

কিছু নাস্তিক বন্ধুদের জন্যে এখন চরম বিরক্তবোধ করছি। একসময় মনে হতো নাস্তিক মানেই ভালো মানুষ, কিন্তু সম্প্রতি এ ধারণাটা একেবারে অন্যরকম হলো। জানলাম নাস্তিক বদমাশ হতে পারে, ধর্ষক হতে পারে, ইতর হতে পারে, চোর হতে পারে, হতে পারে যেকোনো দোষে দুষ্ট। নারীবাদ নিয়ে বললেই এদের আসল চেহারাটা বেরিয়ে পড়ে। এরকম নাস্তিকতায় কোনো মেয়ে তার থুথুও ফেলবে না। ঘৃণা করবে। মানুষ হওয়াটা আগে প্রয়োজন। পরিমিতিবোধ ছাড়া মানুষ কি আদৌ মানুষ? দেখা যাচ্ছে মুক্তমনা আর নাস্তিকতার নামে যখন যা ইচ্ছে বলছে, করছে। এর প্রতিবাদ করলেই বলে ওঠে- ট্যাবু বাদ দিন, এই-সেই। আসলে এরা নারীদের ব্যাপারে আস্তিকদের মতোই মানসিকতা লালন করে। এইসব উনমানুষদের জন্যে আফসোস আর——

#লিপষ্টিক #মার্কা ‪#‎নারীবাদীদের‬ জন্যে ইচ্ছে হচ্ছে—–(এদেরকে তিরস্কার করবার শব্দ বাঙলা ভাষায় পেলাম না)। অসভ্য মেয়েগুলি মনে করে,-হাফপ্যান্ট বা টাইট জিন্স পরে, আটসাট টপস পড়ে সিগারেট হাতে নিয়ে বন্ধুদের সাথে মদের গ্লাসে চিয়ার্স বলতে পারলেই আর কথায় কথায় ময়লা বাক্য বলতে পারলেই ‘মুক্তি’ বা ‘স্বাধীনতা’ হয়ে গেলো। অতই সহজ?? বোরকা পড়া যেমন অশ্লীল, স্বল্প পোশাক বা আটসাট পোশাক পরাও ঠিক তেমনই। কোনটিই কাম্য নয়। নাস্তিকতা এদের কাছে শুধুই ঈশ্বরে অবিশ্বাস, মানুষ হবার প্রয়োজনটুকু বোধ করে না। এরা পথভ্রষ্ট। এদেরকে এখন ডাস্টবিনে ফেলে দেয়াটা খুব প্রয়োজন।

নারীবাদ, নাস্তিকতা এইসব-কুলাঙ্গারদের হাত থেকে মুক্তি পাক।

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.