চলে গেলেন আলজেরিয় লেখক আসিয়া জেবার

Assia Djebarউইমেন চ্যাপ্টার: আলজেরিয়ার অগ্রগণ্য নারী সাহিত্যিক এবং চলচ্চিত্র-নির্মাতা, আসিয়া জেবার, ৭৮ বছর বয়সে মারা গেছেন। প্যারিসের একটি হাসপাতালে শুক্রবার তিনি মারা যান। তাঁর জন্ম হয়েছিল ১৯৩৬ সালের ৩০ জুন।

তাঁর প্রথম উপন্যাস, দ্য থার্স্ট  প্রকাশ হয় পঞ্চাশের দশকে, যাতে তিনি আরব এবং মুসলিম বিশ্বের নারীর অবস্থান ও পরিচয়ের জটিল দিকগুলো তুলে ধরেন। ফরাসী ভাষায় তাঁর বিভিন্ন লেখায় আলজেরিয়া এবং ফরাসী উপনিবেশের ইতিহাসও উঠে এসেছিল। তিনি প্রথম উত্তর আফ্রিকার লেখক নির্বাচিত হ্ওয়ার পরই তিনি লেখক হিসেবে স্বীকৃতি পান।

তাঁর আসল নাম ফাতিমা জোহরা ইমালায়েন। তিনি একাধারে লেখক, ঔপন্যাসিক, অনুবাদক এবং চলচ্চিত্র-নির্মাতা ছিলেন। অধিকাংশ লেখাতেই তিনি নারীদের বিভিন্ন সমস্যা এবং নিজের নারীবাদী ভূমিকা তুলে ধরেন। ১৯৫৭ সালে তাঁর উপন্যাস প্রকাশের পর তিনি বিশ্বব্যাপী সমাদৃতও হন।

সাম্প্রতিক সময়ে নোবেল সাহিত্য পুরস্কারের জন্য তাঁর নাম বার বারই উচ্চারিত হয়েছে।  ২০০৫ সালে ফ্রান্সের সর্বোচ্চ সাহিত্য ইনস্টিটিউট থেকে একাডেমিক ফ্রাঞ্চাইজ নির্বাচিত হন। ফরাসী ভাষায় তিনি ১৫টিরও বেশি উপন্যাস লিখেছেন। এর মধ্যে কবিতা এবং ছোট গল্পও রয়েছে। তাঁর বই প্রকাশ পেয়েছে ইংরেজিসহ ২৩টি ভাষায়। পড়াশোনা করেছেন ফ্রান্স এবং যুক্তরাষ্ট্র দুই জায়গাতেই। মাত্র ১৮ বছর বয়সে তিনি ফ্রান্সে চলে আসেন এবং প্রথম আলজেরিয় নারী হিসেবে ফ্রান্সের সর্বোচ্চ বিদ্যাপিঠে ভর্তি হন।

 

 

 

শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.